এ্যাম্বুলেন্স বিডি হচ্ছে সর্বাধুনিক এ্যাম্বুলেন্স সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান।

হেল্প লাইন: ০১৯১১৭৬৭৬৩৫

এ্যাম্বুলেন্স বিডি আল-আমিন এ্যাম্বুলেন্সের একটি প্রতিষ্ঠান

slider slider
icu ambulance slider icu ambulance slider
Certification Certification
slider-4 slider-4
slider-5 slider-5
slider-6 slider-6

আমাদের সেবা সমূহ

যখনিই আপনার প্রয়োজন তখনিই আপনার পাশে

আপনি বাংলাদেশের যেখান থেকেই কল করুন ।আমাদের কন্ট্রোল রুম থেকে সব কিছু পরিচালনা করা হয় । ঢাকা সিটির যে প্রান্তেই থাকুন আমরা আপনাকে ৩০ মিনিটের আগে এ্যাম্বুলেন্স দেওয়ার চেষ্টা করবো ।আমাদেরকে সরাসরি কল করলে ২০% ভাড়া থেকে ডিসকাউন্ট পাবেন ।প্রচন্ড ঝর বৃষ্টি রাতে আপনার বিপদের সময় আমরা না করবো না ।অবশ্যই আপনার পাশে হাজির হবো ইনশাআল্লাহ ।কালবৈশাখী ঝড় প্রচন্ড বৃষ্টি মাঝ রাতে আপনার ডেলিভারী পেশেন্ট নিয়ে সমস্য পড়েছেন । কোনো চিন্তা নাই জাষ্ট আমাদের একটা ফোন করুন । এ্যাম্বুলেন্স আপনার সামনে হাজির হয়ে যাবে ।তাই বলছি এ্যাম্বুলেন্সের জন্য এ্যাম্বুলেন্সের মালিককে সরাসরি ফোন করুন ।এতে দুইটা লাভ এ্যাম্বুলেন্সটি তাড়াতাড়ি পাইতেছেন ও কম ভাড়ায় পাইতেছেন ।আবার আমাদের কোম্পানির এ্যাম্বুলেন্স আপনার জেলায় আছে ।তার জন্যও যোগাযোগ করুন ।বিভিন্ন জেলা থেকে যারা ফোন করবেন ।চেষ্টা করবেন অবশ্যই মিনিমাম ৩ থেকে ৪ঘন্টা আগে জানাবেন ।আমাদের এ্যাম্বুলেন্সটি ঢাকায় খালি আসবে না ।অবশ্যই আপনার রুগীকে ঢাকা নিয়ে আসবে ।

আরও
সতর্কবাণী

কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অনলাইনে অর্থাৎ গুগোলে ডলার খরচ করে বিজ্ঞাপন দেন ঠিকই ।আসলে তাদের নিজস্ব কোনো এ্যাম্বুলেন্স নাই । নকল অ্যাম্বুলেন্স সংস্থা ও আসল অ্যাম্বুলেন্স সংস্থা কিভাবে চিনবেন যে কোম্পানির এ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করবেন তাকে প্রশ্ন করুন তোমার কোম্পানির নাম এ্যাম্বুলেন্সে গায়ে লেখা থাকবে কিনা । এ্যাম্বুলেন্সের গায়ে কোম্পানির নাম লেখা থাকলে সেটা আসল এ্যাম্বুলেন্সের গায়ে কোম্পানির নাম লেখা না থাকলে সেটা নকল অনেক সময় দেখা যায় নকল সংস্থা আসল সংস্থার সাথে চুক্তি করে গাড়ীতে ছোট করে এক কোনায় আমার কোম্পানির নাম তোমার ফ্রিজিং গাড়িতে লেখে দিবা মাসে তোমাকে অনেক গুলো ট্রিপ দিবো ।বা টাকা দিবো প্রিয় সুধী আসলে তাদের নিজস্ব কোনো গাড়ী নাই ।আপনারা তাদের অনলাইনের নাম্বার থেকে ফোন করেন ঠিকিই তাড়া আমাদের মতো আসল এ্যাম্বুলেন্স কোম্পানির থেকে এ্যাম্বুলেন্স ভাড়া কন্ট্রাক করে আপনাদের দেয় কিছু কমিশন পারসেনটিশ বিনিময় এবং কি তাড়া মরা লাশের থেকেও কমিশন খায় । ঐ সমস্ত টাউট পাটপার থেকে সাবধান ।সত্যি কথা বলতে চাই ১৯৮৮ সাল থেকে আমরা বাংলাদেশ ব্যাপি এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবসা করে আসছি ।আমাদের আর কোনো ব্যবসা নাই এ্যাম্বুলেন্সই আমাদের এক মাত্র ব্যবসা ।তাই বলি সরাসরি এ্যাম্বুলেন্সের মালিককে সরাসরি কল করুন ।

আরও
অক্সিজেন পরিচালনার জন্য একজন অভিজ্ঞ এসিস্ট্যান্ট থাকে

সব ধরনের রুগী বা লাশ আমরা বহন করে থাকি ।তার মধ্যে হার্টের রুগী,ব্রেইন ষ্ট্রোক,ডেলিভারী রুগী,ক্যান্সার রুগী, এক্সিডেন্টের রোগী,শ্বাসকষ্টের রোগী,অবশ্যই দ্রুত সার্ভিস দিতে হয় । আমরা 24 ঘন্টা আপনার রোগিকে অথবা আপনার মৃত্যু ব্যক্তিকে সেবা দেওয়ার জন্য সদা প্রস্তুত থাকি ।আমাদের এ্যাম্বুলেন্সের পার্কিং এর পাশে ড্রাইভার ও হেলপারদের থাকা খাওয়র ব্যবস্থা করে রাখা হয়েছে । যাতে করে আপনি ফোন করার সাথে সাথে দ্রুত ড্রাইভার ও হেলপার এ্যাম্বুলেন্সটি নিয়ে ছুটে যেতে পারে ।আমাদের সার্ভিস সব সময় পাবেন ।হরতাল,কারফিউ,অবরোধ,কোন বাধা ধরা নেই । যে সমস্ত যায়গায় ঠিক টাইম মতো এ্যাম্বুলেন্স নিয়ে উপস্থিত থাকতে হয় । রুগীর লোক এবং লাশের লোকদের টেনশনে রাখা যাবে না ।একটু আগে উপস্থিত থাকতে হয় । বেনাপোল বর্ডার ও অন্যন্যা বর্ডার, এয়ারপোর্ট, কমলাপুররেলষ্টেশন, সদরঘাট টার্মিনাল, বাহিরের দেশ থেকে বুকিং এর নিয়ম হচ্ছে । ইমেইলের মাধ্যমে মেইল আদান প্রদান করতে হবে । তার পার কোটেশন দিতে হবে ।

আরও
অর্ধেক ভাড়ায় এ্যাম্বুলেন্স খুচ্ছেন ?

আপনি অর্ধেক ভাড়ায় এ্যাম্বুলেন্স টি কিভাবে পাচ্ছেন ঢাকা থেকে আমাদের একটা এ্যাম্বুলেন্স চাঁপাইনবাবগঞ্জ গেছে । সেখানে ড্রাইভার রুগী নামাইছে ।এরই মধ্যে নাটোর জেলা থেকে এক ভদ্রলোক ফোন করলো আমাদের কন্ট্রোল রুমে সে নাটোর থেকে একটা রুগী টাঙ্গাইলে আনবে ।আবার টাঙ্গাইল থেকে আরেক ভদ্রলোক ফোন করলো সে টাঙ্গাইল থেকে একটা রুগী ঢাকায় আনবে ।তখন আমরা GPRS এর মাধ্যমে দেখতে পাই ।তখন আমরা চাঁপাইনবাবগঞ্জের ড্রাইভার কে বলে দেই তুমি নাটোর থেকে একটা রুগী উঠাইবা টাঙ্গাইলে নামাবা আর টাঙ্গাইল থেকে একজন রুগী উঠাইবা ঢাকায় নামাইবা এই ভাবে আপনি এ্যাম্বুলেন্সটি অর্ধেক ভাড়ায় পাইতেছেন ।আপনার সাথে আমাদের যোগাযোগ প্রতি দিন না হলে প্রতি সপ্তাহে প্রতি সপ্তাহে না হলে প্রতি মাসে যোগাযোগ হবে।

আরও
error: Content is protected !!